স্বামী স্ত্রী উভয়ের লজ্জাস্থান দেখা কি জায়েজ?

Spread the love

স্বামী স্ত্রী উভয়ের লজ্জাস্থান দেখা কি জায়েজ?

স্বামী স্ত্রীর লজ্জা স্থান স্ত্রী স্বামীর লজ্জা স্থান দেখতে পারবে কিনা ইসলামে এর বিধি নিষেধ রয়েছে কিনা এমন প্রশ্ন অনেকের মনেই আসতে পারে । তবে যেনে নেই এর  উত্তর ‍।

স্বামী স্ত্রী উভয়ের লজ্জাস্থান দেখা কি জায়েজ?-এ নিয়ে দুই রকমের বর্ণনা রয়েছে।

আয়সা (রাঃ) এর বর্ননায় পাওয়া যায় তিনি বলেন আমি এবং নবীকারিম ( সঃ) একে অন্যেরজ্জাস্থান কখনও দেখিনি। সে থেকে আমরা বুঝতে পারি যে একে অন্যের লজ্জাস্থান না দেখাটাই উত্তম। অবশ্য অনেক বিশ্লেষনে বলা আছে একে অন্যের লজ্জাস্থান দেখলে চোখের জন্যও উপকারী নয়। এতে চোখের ক্ষতি হয় এবং একে অন্যের লজ্জাস্থান দেখলে উভয়ই লজ্জা অনুভব করতে পারে। যেহেতু আয়সা (রাঃ) থেকে বর্ননা রয়েছে সে ক্ষেত্রে একে অন্যের লজ্জাস্থন না দেখাটাই উত্তম।

স্বামী স্ত্রীর সম্পর্ক
বৈবাহীক রিতিনীতি

অন্য একটি হাদিসে অবশ্য এটার অনুমতিও পাওয়া যায় ,তবে  বিষয়টি হলোযে কেহ দেখতে চাইলে দেখতে পারবেন। যদি এমন হয় কেহ যদি দেখে তাদের ভিতরে ভালবাসা বৃদ্ধি পাবে তাহলে দেখতে পারবে   তবে এটাকে হারাম বলার কোন সুযোগ নেই বা নাজায়েজও বলা যাবে না, যেহেতু আয়সা (রাঃ) থেকে  এমন বর্ননা রয়েছে সেহেতু  না দেখাটাই উত্তম।

আরও পড়ুনঃ-স্বামী কি স্ত্রীর লজ্জাস্থান দেখতে পারবে

4 thoughts on “স্বামী স্ত্রী উভয়ের লজ্জাস্থান দেখা কি জায়েজ?

Leave a Reply

Your email address will not be published.