নিম পাতার গুনাগুন

Spread the love

নিম পাতার গুনাগুন

নিমগাছ পরিবেশের জন্য খুবই উপকারি। বিশ্বস্বাস্থ্য সংস্থ্যা নিমকে বহুমুখী উপকারীতার জন্য এটিকে একুশ শতকের বৃক্ষ হিসেবে পরিচয় দিয়েছেন। নিমের ঔষধি গুনাগুন যুগের পর যুগ ধরে প্রসিদ্ধ হয়ে আসছে।  নিমগাছের প্রতিটা অংশ- শিকড়, বাকল, আঠা, পাতা, ফল, ডাল, বীজ এবং বীজের তেল ভেষজ ঔষুধ হিসেবে আদিকাল থেকে ব্যবহার করে আসছে। নিমে ব্যকটেরিয়া, ভাইরাস, ছত্রাক, জ্বার ও বেদনানাশক এবং অ্যান্টি-ডায়াবেটিক, রক্ত পরিস্কারক ও স্পারমিসাইডাল উপাদান আছে। এসব ছাড়াও নিমেরপাতায় লুকিয়ে আছে আরো কিছু ঔষধি গুনাগুন যা রূপর্চায় এবং স্বাস্থ্যের জন্য খুবই উপকারী। নিম পাতায় রয়েছে অ্যান্টিফাঙ্গাল এবং অ্যান্টিভাইরাল বৈশিষ্ট্য যার ফলে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমাতা বৃদ্ধিতে কার্যকর ভূমিকা পালন করে থাকে।

নিম পাতার ছবি
নিম পাতার ছবি
নিম পাতার উপকারিতা     

ক্ষত সাড়ায়ঃ-

নিম পাতা ক্ষত সাড়াতে খুবই কার্যকর ভূমিকা পালন করে থাকে। ক্ষত স্থানে নিম পাতা বেটে পেস্ট বানিয়ে ক্ষত স্থানে দিলে ক্ষত তাড়াতাড়ি সেরে যাবে। এছাড়াও নিম পাতার সাথে কাঁচা হলুদ পিষে নিয়ে ক্ষত স্থানে প্রলেপ দিলে খোস-পাঁচড়া, বিষাক্ত কিটপতঙ্গে কামড়ানো  ও পুড়ে যাওয়া ক্ষত স্থান সেরে উছবে।

ত্বকের যত্নেঃ-

ত্বকের যত্নে নিমপাতা বেশ ভালো কাজ করে থাকে। ত্বকের বিভিন্ন সমস্যা যেমন ব্রণ, এক্সিমাও সোরিয়াসিস এর মত সমস্যা দূর করতে পারে। এছাড়াও ত্বকের ময়েশ্চারাইজার হিসেবে কাজ করে। ব্রণ দূর করতে নিমপাতা বেটে পেষ্ট করে তা ব্রণের উপরে দিতে পারেন। অনেক সময় দেখা যায় অনেকে নিমের বড়ি বানিয়ে খেয়ে থাকেন তবে এটাও বেশ কার্যকর কাজ করে থাকে। এছাড়াও খুজলি একজিম রোগ সাড়ায় নিম পাতা।

নিম ফুল
নিম ফুল

উকুন চিকিৎসায়ঃ-

উকুন নিধনে নিমের ব্যবহার আদিকাল থেকে । নিমের ব্যবহারে উকুন সমস্যা দুর হয় । নিমের পেস্ট তৈরী করে মাথার তালুতে লাগিয়ে ম্যাসেজ করে তারপর স্যাম্পু অথবা সাবান দিয়ে ধুয়ে ফেলুন এবং উকুনের ‍চিরুনি দিয়ে মাথা আঁচড়ালে উকুন কমে যাবে। তবে এমন করে সপ্তাতে ২ দিন দিতে হবে। অল্পদিনে দেখাযাবে উকুন দূর হয়ে গেছে।

রক্তের সুগার লেভেল নিয়ন্ত্রন করেঃ-

নিম পাতা ডায়বেটিস নিয়ন্ত্রনে খুবই চমৎকার কাজ করে থাকে। নিমের পাতা রক্তের সুগার লেভেল কমাতে সাহার্য করে । এছাড়াও রক্তনালীতে প্রসারিত করে রক্ত সংবহন উন্নত করে । ভালো ফল পেতে নিমের পাতার পাউডার বানিয়ে পানির সাথে মিশিয়ে প্রতিদিন সকালে খালি পেটে এক গ্লাস পান করতে হবে। অল্পদিনে রক্তের সুগার লেভেল কমে যাবে এবং ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রনে চলে আসবে।

নিম ফল
নিম ফল

চোখের সমস্যা দূর করেঃ-

মাঝে মধ্যে চোখে বিভিন্ন ধরনের সমস্যা দেখা যায় যেমন চোখ লালচে হয়ে যাওয়া ক্লান্তি ভাব  ইত্যাদি । এমন সমস্যা হলে নিমপাতা পানিতে ফুটিয়ে সেই পানি ঠান্ডা করে ঐ পানি দিয়ে চোখে ঝাপসা দিলে চোখের সমস্যা দূর হয়ে যাবে।

দেহের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়ঃ-

নিম দেহের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমাত বৃদ্ধিতে সহায়তা করে থাকে। দেহের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধিতে  প্রতিদিন সকালে নিমপাতর রস খেলে দেহের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমাত বৃদ্ধি করে। এছাড়াও নিম দাঁতের রোগ দূর করে। হেপাটাইটিস নিরাময়কে ত্বরান্মিত করতে এবং মশার কামড় থেকে রক্ষা করতে কার্যকর ভূমিকা পালন করে থাকে।

নিম গাছের ছবি
নিম গাছের ছবি

নিম পাতার গুনাগুননিম পাতার গুনাগুন নিম পাতার গুনাগুন নিম পাতার গুনাগুন

2 thoughts on “নিম পাতার গুনাগুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.