রোদে ত্বকের উজ্জলতা কমেছে? কি করনিও?

Spread the love

রোদে ত্বকের উজ্জলতা কমেছে? কি করনিও?

অতিবেগুনি রশ্মির কারনে আমাদের ত্বক পুড়ে যায় যার কারনে আমাদের  ত্বকের উজ্জলতা কমে যায়,  ত্বক হয়ে যায় রূক্ষ ও খসখসে । রোদে ঘোরাঘুরি করলে ত্বক পুড়ে যায়। কমে যায় ত্বকের জেল্লা। রোদের অতিবেগুনি রশ্মি কারনে এমনটা হয়ে থাকে। রোদ থেকে ত্বকের পুড়ে যাওয়ার সমস্যা সমাধানে আমরা অনেকেই নানা ক্রিম বা ওষুধ ব্যবহার করে থাকি। কিন্তু এই ক্রিম বা ঔষধ যে সবসময় ত্বকের জন্য উপকারী তা নয়। হয়ে থাকে নানা ধরনের ক্ষতিও। কিন্তু এর চেয়ে অনেক সহজ উপায়ে  সমস্যার সমাধান হতে পারে। ঘরোয়া উপায়ে এই ত্বকের সমস্যা সমাধান করা সম্ভব।

আরও পড়ুনঃ-খেজুরের ৭ ধরনের স্বাস্থ্য উপকারিতা

রোদে-পোড়া-দাগ


রোদে ত্বকের উজ্জলতা কমেছে? কি করনিও?

মধুঃ– মধু এমন একটি উপকরন যা ত্বকের ক্ষেত্রে অনেক উপকার করে থাকে।মধুতে থাকা এনজাইম ত্বককে গভীর থেকে ময়েশ্চারাইজার করে। তাছাড়া ত্বকে কন্ডিশনিং এবং কোমল করে তোলে ।

শুষ্ক ত্বকে ১ চামচ রো- হানি নিয়ে ১০ থেকে ১৫ মিনিট রেখে উষ্ণ গরম পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। ব্যস হয়ে গেল শুষ্ক ত্বকের মধুর তৈরি ফেস মাকর্স।

টমেটো: টমেটো আমরা রোজই খাই, এতে রয়েছে হাজারো গুণেরে উপকারী উপাদান। এতে রয়েছে প্রচুর অ্যান্টিঅক্সিড্যান্টে । রোজ নিয়ম করে এটি খেলে ত্বকের জেল্লা বজায় থাকবে। ১ টি পরিমাণে টমেটো-থেঁতো রোজ খেলেই কমবে রোদে পোড়ার সমস্যা।

আঙুর: আঙুর একটি উপকারী ফল। কিন্তু এর গুণ আমাদের অনেকের কাছেই অজানা। আমাদের প্রতিদিন রোদে ঘোরাঘুরি করতে হয়, তাই আমাদের ত্বককে রোদের হাত থেকে বাঁচাতে পারে এই ফল। এর কিছু উপাদান ত্বকের উপরে প্রলেপ তৈরি করে। বিশেষ করে এতে থাকা পলিফেনলস অতিবেগুনি রশ্মি থেকে ত্বককে বাঁচায়।

 কফি: কফি একটি জনপ্রিয় খাবার। বিশেষজ্ঞদের মতে যাহারা রোজ চার কাপ বা তার সামান্য বেশি পরিমাণে কফি খান, তাঁদের ত্বকের ক্যানসারের আশঙ্কা কম থাকে। এর কারণ কফিতে থাকা উপাদান ত্বককে অতিবেগুনি রশ্মি থেকে বাঁচাতে সহায়তা করে থাকে। ফলে রোদে নিয়মিত বেরোতে হলে একই সঙ্গে নিয়ম করে কফিও খাওয়া যেতে পারে এতে সুরক্ষিত থাকবে ত্বক। তবে মনে রাখবেন, এই কফিতে দুধ বা চিনি মেশানো যাবে না।

ডালঃ- পরিমাণমত মসুর ডালের পেস্ট-এর সঙ্গে সমপরিমাণ গাঁদা ফুল মিশিয়ে ভাল করে বেটে নিয়ে  পেস্টটি বানাতে হবে। তারপর সেটি কম করে হলেও ১৫ মিনিট মুখে লাগিয়ে রাখার পর ধুয়ে ফেলতে হবে।

প্রসঙ্গত, ড্রাই স্কিনের সমস্যা দূর করার পাশাপাশি ব্রণের প্রকোপ কমাতে এবং ত্বককে নরম তুলতুলে করে তুলতেও এই ফেইস মাস্কটি বিশেষ ভূমিকা পালন করে থাকে।

তরমুজ: তরমুজে রয়েছে প্রচুর পানি যা ত্বকের জন্য খুবই উপকারী। এতে রয়েছে লাইসোপেন নামক উপাদান  এটি শরীরকে শুকিয়ে যেতে দেয় না, আর্দ্র রাখে। বিশেষ করে ত্বকের আর্দ্রতা ধরে রাখে এই উপাদানটি। ফলে রোদে ত্বক কম পোড়ে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *