যৌনকর্মীদের তালিকা তৈরী করছে তালেবান

Spread the love
তালেবান যৌন দাসী

যৌনকর্মীদের তালিকা তৈরী করছে তালেবান

সংবাদ সংস্থা ‘দ্য সান তাদের এক প্রতিবেদনে বলেন তালেবান আফগানিস্তানের কাবুলের দখল নেওয়ার পরে দেশটির যৌনকর্মীদের তালিকা তৈরী করছে তাহারা। দ্য সান তাদের রিপোর্টে বলেন যে প্রাথমিক ভাবে ধারনা করা হচ্ছে তালিকায় নাম থাকা যৌনকর্মীদের খুজে বের করে তাদের মেরে ফেলার আশংকা রয়েছে।

তালেবান আফগানিস্থানের কাবুল দখল নেওয়ার পরেই অনেক যৌনকর্মীরা দেশ ছেড়ে পালিয়ে গিয়েছে। অনেকে এখনও আফগানিস্তানের ভিবিন্ন প্রদেশে লুকিয়ে রয়েছে। তার পরে সেই তালিকা মিলিয়ে মহিলাদের খুঁজে বার করা হবে। তাঁদের মধ্যে যাঁরা বিদেশিদের সঙ্গে যৌনকর্মে লিপ্ত হয়েছেন তাঁদের মেরে ফেলা হতে পারে। বাকিদের যৌনদাসী করে রাখতে পারে তালিবান।

আরও পড়ুনঃ-সাগরের নাম কেন হলো লোহিত সাগর?

এর আগে ১৯৯৬ থেকে ২০০১ সাল পর্যন্ত তালিবানি শাসনে একই ধরনের ঘটনা সামনে এসেছে। সেই সময় যৌনপেশায় যুক্ত অনেক মহিলাকে প্রকাশ্যে মেরে ফেলা হয়েছিল। গত ২০ বছর ধরে বিবাহ-বহির্ভূত সম্পর্ক থাকা অনেক মহিলাকে খুন করেছে তারা। তাই তালিবানি শাসনে মহিলাদের ফের একই অবস্থা হতে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। যদিও তালিবানের তরফে এখনও পর্যন্ত মহিলাদের বিরুদ্ধে কোনও ফতোয়া জারি করা হয়নি। এমন কি মহিলা কর্মীদের কাজে যোগ দিতে বলেছে তালেবানের পক্ষ থেকে।

আরও পড়ুনঃ- ফেসবুকে বাজে ম্যাসেজ পাচ্ছেন? ব্যাবস্থা নিবে পুলিশ।

আফগানিস্তানের নারী অধিকারকর্মী ফৌজিয়া কুফি বলেন, আফগানিস্তানে সবচেয়ে ঝুঁকিপূর্ণ অবস্থায় আছে নারীরা। তালেবানরা ‘অপরাধীদের’ জেল থেকে মুক্তি দিয়ে এখন হুমকি দিচ্ছে। ২০ বছরে নারীর ক্ষমতায়নে যে অগ্রগতি হয়েছে, তা এখন ভূলুণ্ঠিত হতে বসেছে। মনে হচ্ছে আফগান নারীদের ভবিষ্যৎ অন্ধকার।

তালেবানের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, প্রকৃত ইসলাম সমর্থন করে এমন আফগানি ঐতিহ্য তারা ধারণ করতে চান। কিন্তু আগের শাসনের সঙ্গে ‘প্রকৃত ইসলামি ব্যবস্থার’ কী পার্থক্য হবে—তা এখনো পরিষ্কার নয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published.