জামের পুষ্টিগুন এবং এর উপকারীতা

Spread the love

জামের পুষ্টিগুন এবং এর উপকারীতা

      জামের পুষ্টি উপাদান

  • প্রোটিন
  • ভিটামিন-সি
  • ক্যালসিয়াম                                                
  • শর্করা
  • স্নেহ পদার্থ
  • ভিটামিন এ, বি ১, বি ২, বি ৩, বি৬
  • থায়ামিন বি১,নায়াসিন বি৩
  • অ্যাসিড বি৩
  • খনিজ
  • ম্যাগনেসিয়াম
  • ফসফরাস
  • পটাশিয়াম
  • সোডিয়াম
  • পানি

  জামের উপকারী গুনাগুন

  • চোখ ও ত্বকের উপকারে:- জামে রয়েছে ভিটামিন সি ,ভিটামিন এ এবং মিনারেল যা আমাদের চোখ ও ত্বকের উপকার করে থাকে। অ্যাসট্রিনজেন্ট প্রপার্টি থাকার কারনে জাম ত্বক অয়েল ফ্রি রাখে এবং কালো ছোপ দূর হয়।
  • দাঁত ও মাড়ি ভালো রাখেঃ- জামে রয়েছে অ্যান্টি ব্যাকটেরিয়াল প্রপার্টি নামক উপাদান যা দাঁত ও মাড়ি ভালো রাখে এবং মুখের দুর্গন্ধ থেকে রক্ষা করে।
  • ডায়বেটিসের জন্য উপকারীঃ- জামে অ্যান্টি ডায়েবেটিক প্রপার্টি আছে যা রক্তে চিনির মাত্রা কমায় এবং জামে গ্লাইসেমিক ইনডেক্স কম হওয়ার ফলে রক্তে চিনির মাত্রা নিয়ন্ত্রিত থাকে ।
  • রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়ঃ- জামে রয়েছে ভিবিন্ন ধরনের ভিটামিন গুনাগুন । জাম হলো  অ্যান্টি-অক্সিড্যান্ট, যা ফ্রি  র‌্যাডিক্যালগুলোতে আক্রমণ করে দেহের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়িয়ে থাকে।
  • হাড়ের উপকার করেঃ- জামে রয়েছে প্রচুর ক্যালসিয়াম , ফসফরাস, পটাশিয়ামের মতো খনিজ উপাদান যা হাড়কে শক্ত ও মজবুত করতে সহায়তা করে।
  • স্মৃতি শক্তি ঠিক রাখেঃ– জামে থাকা গ্লুকোজ , ডেক্সটোজ, ফ্লুটোজ ‍উপাদান গুলোতে শরীরেল শক্তি সঞ্চিত করে এবং স্মৃতি শক্তি প্রখর রাখতে বিশেষ ভূমিকা রাখে।
  • ইনফেকশন থেকে বাঁচায়ঃ- জামে রয়েছে অক্সিলিড অ্যাসিড, গ্যালিক অ্যাসিড, ম্যালিক অ্যাসিড, ট্যানিক ইত্যাদি উপাদন গুলোতে শরীরে ইনফেকশন থেকে দূরে রাখে।

বিঃদ্রঃ বিশেষজ্ঞদের মতে এই ফলটি খালি পেটে না খাওয়াই ভালো।

Leave a Reply

Your email address will not be published.