পালং শাকে যত উপকারীতা

Spread the love

পালং শাকে যত উপকারীতা

পালংশাক একটি পরিচিত এবং অতি সুস্বাদু শাক। এটি মুলত শীত কালিন শাক, এটি ভাজি এবং ঝোল রান্না করে খাওয়া হয়। পালং শাকে রয়েছে প্রচুর পরিমাণ পুষ্টি যা আমাদের শরীরকে সুস্থ থাকতে সহায়তা করে। আমরা জেনে নিব এর উপকারী দিক গুলোঃ-

ব্লাড প্রেশার কমায়ঃ- পালং শাকে রয়েছে অধিক পরিমাণে ম্যাগনেসিয়াম যার ফলে শরিরের উচ্চ রক্তচাপ বা হাই ব্লাড প্রেশার কমায়।

শরীরের রক্তের মাত্রা ঠিক রাখেঃ- পালং শাকে প্রচুর ভিটামিন-এ থাকার কারনে রক্তের শ্বেত কণিকার মাত্রা ঠিক রাখে, ফলের শরীরে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি পায় যার ফলে রোগের সংক্রামন কম হয়।

ক্যান্সারের ঝুঁকি কমায়ঃ- পালং শাকে রয়েছে বিভিন্ন মাত্রার ফ্লাভোনয়েড যে গুলোতে ক্যান্সারের ঝুঁকি কমে যায়।

চোখের ছানি পড়াঃ- পালং শাকে রয়েছে উচ্চ মাত্রার ক্যারোটিন যা চোখের ছানি পড়ার ঝুঁকি কমিয়ে দিয়ে থাকে।

ত্বকের সৌন্দর্য বৃদ্ধিঃ-পালং শাকে ভিটামিন-এ প্রচুর পরিমানে থাকার কারনে ত্বকের মসৃণতা ধরে রাখে এবং ব্রণ, কালো দাগ এমনকি চামড়ায় বয়সের ছাপ ফেলতে পারেনা।

ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণঃ- পালং শাকে প্রচুর আয়রন থাকে যা মানব দেহের অক্সিজেন উৎপাদন করে যার ফলে ডায়াবেটিসের মাত্রা নিয়ন্ত্রণ করে থাকে।

হাড়ে সমস্যাঃ- যাদের হাড়ের জয়েন্ট ব্যাথা তাদের প্রতি দিনের খাদ্য অভ্যাসে পালং শাক রাখার চেষ্টা করা উচিত ।

কিডনি সমস্যাঃ- মানব দেহের কিডনিতে যে পাথর হয়ে থাকে সে সমস্যা থেকে মুক্তি দিতে পালং শাক এর গুরুত্ব অপরিসীম। তাই খাদ্য তালিকায় পালং শাক রাখার চেষ্টা করা উচিত।

কোষ্ঠকাঠিন্য দূর করতেঃ- কোষ্ঠকাঠিন্য সমস্যা থেকে মুক্তি দিতে পালং শাক খুবই গুরুত্বপূর্ণ কাজ করে থাকে।

এছাড়াও পালং শাকে রয়েছে বহু গুনাগুন । তাই আমাদের প্রতিদিনের খাদ্য তালিকায় পালং শাক রাখা খুবই গুরুত্বপূর্ণ।

2 thoughts on “পালং শাকে যত উপকারীতা

Leave a Reply

Your email address will not be published.