মিষ্টি আলু খাওয়ার উপকারিতা

Spread the love

মিষ্টি আলু খাওয়ার উপকারিতা

মিষ্টি আলু একটি অতি পরিচিত নাম যা আমরা সবাই চিনে থাকি। এ আলু মাটির নিচে হয়ে থাকে, অনেকে এই আলু গাছকে লতা আলুও বলে থাকে। মিষ্টি আলুর শাকও খুব সুস্বাদু তাই এটিও রান্না করে খাওয়া হয়। মিষ্টি আলু সিদ্ধ করে, তরকারি হিসেবে ইত্যাদি নানা প্রকৃয়ায় খাওয়া হয়। মিষ্টি আলু স্বাদে মিষ্টি হওয়ায় এর নাম করন করা হয় মিষ্টি আলু। মিষ্টি আলু নামক এ সবজিটির স্বাস্থ্যকর এবং পুষ্টিকর অনেক গুনাগুন রয়েছে।

মিষ্টি আলুতে ভিটামিন সি, বি2, বি 6, ডি, ই এবং বায়োটিনের মত ভিটামিনে পরিপূর্ণ | মিষ্টি আলু, ক্যারটিনয়েড যেমন বিটাক্যারোটিন এবং ভিটামিন ‘এ’র একটি চমৎকার উৎস যা শিকড়-সবজি বিভাগের মধ্যে সর্বোচ্চ পেয়ে থাকে।

মিষ্টি আলুর উপকারীতা দেখে নেইঃ-

শরীরের রক্তকণিকা বাড়ায়ঃ- মিষ্টি আলুতে রয়েছে ভিটামিন সি এবং লোহা যার ফলে এটি শরীরে রক্তকণিকা বাড়িয়ে থাকে।

হাঁড় ও দাঁতঃ- আমরা জানি মিষ্টি আলুতে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন সি রয়েছে যার ফলে এটি রক্ত কোষ, হাড় ও দাঁত গঠনে অনেক গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে।

হার্ট অ্যাটাক প্রতিরোধ করেঃ- মিষ্টি আলুতে রয়েছে প্রচুর ভিটামিন বি -৬ যা হার্টকে সুস্থ রাখে, এটি ব্যবহার রাসায়নিক হোমোসিস্টেইন কমায় যার ফলে হার্ট অ্যাটাক প্রতিরোধ করে থাকে।

ক্যান্সারের ঝুঁকি হ্রাসঃ- মিষ্টি আলুতে যে ক্যারটিনয়েড রয়েছে তাতে ক্যান্সার থেকে শরিরকে রক্ষা করে। মিষ্টি আলুর খেলে শরীরের ক্যান্সারের ঝুঁকি কমে যায়।

ডায়াবেটিসঃ- মিষ্টি আলু খাওয়ার ফলে রক্তের শর্করার মাত্রা কমে থাকে যা ডায়াবেটিস রোগীর জন্য খুবই ভালো।

মস্তিষ্ক ঠান্ডা রাখেঃ- মিষ্টি আলুতে রয়েছে ভিটামিন ডি সমৃদ্ধ যা মেজাজ ঠিক রাখে এবং স্নায়ু ও ত্বক ভালো রাখতে বিশেষ ভূমিকা পালন করে।

এছাড়াও মিষ্টি আলুর আরও অনেক উপকারী দিক রয়েছে যা আমাদের দৈনন্দিন জীবনে খুবই প্রয়োজন এবং একজন মানুষকে সুস্থ ও ফিট রাখতে বিশেষ ভূমিকা পালন করে।

মিষ্টি আলু খাওয়ার উপকারিতা েমিষ্টি আলু খাওয়ার উপকারিতা মিষ্টি আলু খাওয়ার উপকারিতা মিষ্টি আলু খাওয়ার উপকারিতা মিষ্টি আলু খাওয়ার উপকারিতা মিষ্টি আলু খাওয়ার উপকারিতা

2 thoughts on “মিষ্টি আলু খাওয়ার উপকারিতা

Leave a Reply

Your email address will not be published.